লকডাউন শুধু শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে, বাকি সবকিছু খোলা: অধ্যাপক কামরুল

সময় ট্রিবিউন | ১২ আগস্ট ২০২১ ১৪:১৮ আপডেট: ২৬ অক্টোবর ২০২১ ০৮:১৭

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক কামরুল হাসান মামুন-ফাইল ছবি

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক কামরুল হাসান মামুন বলেছেন, বাংলাদেশে করোনা পরিস্থিতি কখনোই এমন খারাপ হয়নি যে সবকিছু খোলা রেখে শুধু শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখতে হবে।

তিনি বলেন, লকডাউন মানে এখন শুধু শিক্ষা প্রতিষ্ঠান লকডাউন, বাকি সবকিছু খোলা। অথচ পৃথিবীর অন্য অনেক দেশ থেকে বাংলাদেশের করোনা পরিস্থিতি অনেক ভালো। আজ থেকে পাঁচ-ছয় মাস আগে তো বন্ধ রাখার কোনো যুক্তিই ছিল না। এখন একটু খারাপ হলেও একই পরিস্থিতির মধ্যেও অন্য অনেক দেশেই স্কুল-কলেজ খোলা। আমেরিকায় এখনো অবস্থা অনেক খারাপ। তারপরেও ওখানে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলা।

অধ্যাপক কামরুল বলেন, এখন তো অবস্থা ভালোর দিকে যাচ্ছে। ভালোভাবে টিকা চলছে, সুতরাং খোলার সিদ্ধান্তটা নিয়ে নিলেই পারত। যা হোক, ভালো সিদ্ধান্ত যেকোনো সময় নিলেই ভালো। লাখ লাখ ছেলেমেয়ের পড়াশোনা বন্ধ, এটার জন্য যে ক্ষতি আর করোনার যে ক্ষতি সেটাকে মেলালে দেখা যাবে শিক্ষায় অপূরণীয় ক্ষতি হচ্ছে। এইটা নানান মাত্রার ক্ষতি। পড়াশোনার তো ক্ষতি হচ্ছেই, এ ছাড়া মানসিক যে ক্ষতিটা হচ্ছে তা পোষাবেন কি করে? সুতরাং অতি দ্রুত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়াটাই যুক্তিযুক্ত।

তিনি বলেন, আমাদের যে হলগুলো আছে সেগুলোতে আবাসিক ব্যবস্থা খুবই খারাপ। হলগুলোতে গণরুম থাকে, পরিবেশের অবস্থাও খুব একটা ভালো না। এগুলোর ব্যাপারে যথাযথ ব্যবস্থা নিতে হবে। প্রাথমিকভাবে ল্যাব ও পরীক্ষার জন্য বিশ্ববিদ্যালয় খোলা উচিত। ক্লাস অনলাইনে যেভাবে চলছে সেটা পরিস্থিতি আরেকটু ভালো হওয়ার আগ পর্যন্ত অনলাইনেই নেওয়া যায়।

এই শিক্ষাবিদ বলেন, হলগুলোতেও প্রাথমিক চিকিৎসা, মেডিকেল সেন্টারগুলোকে আরও উন্নত করা, করোনা টেস্টিং ল্যাব, হলগুলোতে শিক্ষার্থীদের আবাসন সংকট নিরসনের সিদ্ধান্তগুলো নিয়ে কাজ করে পুরোদমে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার প্রক্রিয়ায় যেতে হবে সরকারকে।




আপনার মূল্যবান মতামত দিন:


Top