গর্ভাবস্থায় বেশি খাবেন যেসব খাবার

সময় ট্রিবিউন | ১৩ আগস্ট ২০২১ ১০:৫০ আপডেট: ২৭ অক্টোবর ২০২১ ১১:৩৯

ছবি : ইন্টারনেট

আমাদের দেহের অত্যন্ত প্রয়োজনীয় একটি পুষ্টি উপাদান জিঙ্ক। শরীরের রোগ প্রতিরোধশক্তি বাড়ানো থেকে শুরু করে একাধিক রোগ সারানোর ক্ষমতা রয়েছে জিঙ্কের। গর্ভাবস্থায় থাকলে প্রতিনিয়ত জিঙ্কসমৃদ্ধ খাবার খেতে পরামর্শ দিচ্ছেন বিশেষজ্ঞেরা।

বলা হচ্ছে, গর্ভবতী মহিলাদের খাওয়াদাওয়ার মাধ্যমে প্রতিদিন শরীরে ১১-১২ গ্রাম জিঙ্কের অনুপ্রবেশ ঘটানো জরুরি। কোষের বিভাজন, প্রোটিন সংশ্লেষ এবং বৃদ্ধিতে জিঙ্কের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রয়েছে। কিন্তু গর্ভাবস্থাতে অনেকেরই শরীরে জিঙ্ক ও অন্যান্য পুষ্টি উপাদানের অভাব দেখা যায়। এর ফলে মা ও বাচ্চা দুজনেরই স্বাস্থ্যের ক্ষতি হতে পারে। তাই গর্ভাবস্থায় জিঙ্কসমৃদ্ধ খাবার খাওয়া জরুরি। জেনে নিন জিঙ্কসমৃদ্ধ কী কী নিরামিষ খাবার খেতে পারেন।

লাল শাক : গ্লুটেনমুক্ত ফাইবার, প্রোটিন, ম্যাঙ্গানিজ, ম্যাগনেশিয়াম, আয়রন ও জিঙ্কের উৎস লাল শাক। শাক দিয়ে নানা তরি-তরকারি বানিয়ে খেতে পারেন।

কাঠবাদাম : প্রচুর পরিমাণে পুষ্টিগুণ রয়েছে কাঠবাদামে। সারারাত কয়েকটা কাঠবাদাম জলে ভিজিয়ে রেখে পরদিন সকালে খেয়ে নিন।

কাজু : কাজুতে প্রচুর পরিমাণে ফাইবার, প্রোটিন ও স্বাস্থ্যকর ফ্যাট রয়েছে। কেবল তাই নয় এতে রয়েছে কপার, জিঙ্ক, ফসফরাস, আয়রন ও ম্যাগনেশিয়াম। তাই রোজ কয়েকটি কাজু খেতে পারেন।

সরষে : সরষেতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে পুষ্টি উপাদান। এটি শরীরের প্রদাহজনিত সমস্যা কমানোর পাশাপাশি হৃদযন্ত্রের স্বাস্থ্যও ভাল রাখে।

মুসুর ডাল : মুসুর ডাল এমনিতে খুবই পুষ্টিগুণসম্পন্ন। উদ্ভিজ্জ এই প্রোটিনে বেশ ভাল পরিমাণে রয়েছে জিঙ্কের উপাদান। তাই গর্ভাবস্থায় ডায়েটে মুসুর ডাল রাখুন।

 




আপনার মূল্যবান মতামত দিন:


Top