দর্শকের প্রশংসায় ভাসছে 'পদ্মপুরাণ'

সময় ট্রিবিউন | ৯ অক্টোবর ২০২১ ১২:২৬ আপডেট: ৯ অক্টোবর ২০২১ ১২:২৮

ছবি: সংগৃহীত

পদ্মাপাড়ের মানুষের সংগ্রামী জীবনকে ধারণা করে ছবিটির মুল গল্প এগিয়েছে। সিনেমাটির চিত্রনাট্য লিখেছেন রায়হান শশী। মুক্তির প্রথম দিনই সব শ্রেণির দর্শকদের প্রশংসা পাচ্ছে। শুক্রবার (৮ এপ্রিল) প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পেয়েছে তরুণ নির্মাতা রাশিদ পলাশের সিনেমা ‘পদ্মপুরাণ’।

ছবিটি মুক্তির প্রথম দিনই হলে গিয়ে ছবিটি দেখে এসে অনেকেই তাদের ভালো লাগা মন্দ লাগার কথা জানিয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। বিশেষ করে ছবিটির নতুন মুখ সাদিয়া মাহির প্রশংসা করছে সবাই।

অভিনেত্রী সাদিয়া মাহি এ সিনেমায় নিজের চরিত্রে অভিজ্ঞতা সম্পর্কে বলেন, পদ্মপুরাণ আমার জন্য স্পেশাল। এটা আমার জন্য প্রথম জার্নি ছিল। কারণ এই সিনেমা জন্য দিনের পর দিন পরিশ্রম করেছি আমার মাথার চুল ফেলে দিয়েছি।আর সিনেমাতে আমি কোনো মেকআপ ব্যবহার করিনি। একটা সময় কানে শুনতেও পাচ্ছিলাম না। চার বছরের লম্বা একটা সময় জড়িয়ে আছে সিনেমাটি আমার জীবনের সঙ্গে।আমি এই ছবির মাধ্যমে লড়াই করা শিখেছি।জীবনকে নতুন করে দেখতে শিখেছি। সবসময় ভালো চরিত্রে অভিনয়ের সুযোগ হয় না। এই ছবিতে অভিনয় করে আমি আত্মতৃপ্তি পেয়েছি। কাছে এটি অনবদ্য একটি সিনেমা।

সাদিয়া মাহি আরও বলেন, সিনেমাটি যখন দর্শকেরা হলে দেখছিলেন তখন আমি পরিচালক পলাশ ভাইয়ের সঙ্গে হলের এক পাশে দাঁড়িয়ে, তাদের রেসপন্স দেখছিলাম। প্রথম যখন শুনলেছিলাম কানে,যে সিনেমা ভালো হয়েছে এমন কথা,সেই মূহুর্তের অনুভূতি কোনো ভাষার  মাধ্যমে প্রকাশ করতে পারবো না। তখন মনে হয়েছে চার বছরের লম্বা জার্নিটা কিছুটা হলেও সফল হয়েছি আমি। আমার প্রথম সিনেমা যারা হলে এসে দেখেছেন তাদেরকে ধন্যবাদ এবং যারা দেখেনি তাদেরকে বলবো সিনেমাটি দেখুন হলে এসে আশা করি খারাপ লাগবে না।

সিনেমাটির পরিচালক রাশিদ পলাশ বলেন, সিনেমা শুধু বিনোদনের জন্য না জন্য নির্মাণ করিনি। পদ্মার পাড়ের মানুষের সঙ্গে প্রকৃতির লড়াইয়ে গল্প।আমি বিশ্বাস করি অনেক ভাবনার দ্বার খুলে দিতে পারে এই সিনেমা। সেই জায়গাটাই পর্দায় দেখানোর চেষ্টা করেছি। আমি কোনো মতামত দেয়ার পক্ষে না। আমি একটা ওপেন এন্ডিং রাখতে চেয়েছি দর্শক যে যার মতো  করে ভেবে নেবে।

 

রাশিদ পলাশ আরও বলেন, এই সিনেমা সঙ্গে আমাদের পুরো টিমের চারটি বছরের কঠিন পরিশ্রম জড়িয়ে আছে। গতকাল যারা দেখেছেন। তাঁরা সবাই পজিটিভ রিভিউ দিচ্ছেন। এখন পর্যন্ত ভালো সাড়া পাচ্ছি বলা যায়।

নায়ক সুমিত সেনগুপ্ত বলেন, ‘এ সিনেমার শুটিংয়ের সময়ই মনে হয়েছিল ভালো কিছু হচ্ছে। ইতিমধ্যে ছবিটি দেখে দর্শকের প্রশংসা পোস্ট  সোশ্যাল মিডিয়ায় দেখতে পারছি। অভিনেতা হিসেবে এইসব পোস্ট দেখে ভালোই লাগছে। আমার সবার কাছে অনুরোধ থাকবে হলে এসে প্লিজ আমাদের সিনেমাটি সবাই দেখুন এবং আমাদের ফিডব্যাক জানান, যেনো আমরা ভবিষ্যতে আরও ভালো সিনেমা আপনাদের উপহার দিতে পারি

‘পদ্নাপুরাণ’ ছবিটির বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করেছেন সাদিয়া মাহি, প্রসূন আজাদ, শম্পা রেজা, জয়রাজ, সুমিত সেনগুপ্ত, কায়েস চৌধুরী, সূচনা শিকদার, রেশমী, হেদায়েত নান্নু, আশরাফুল আশিষ, সাদিয়া তানজিন প্রমুখ।

 

দর্শকদের ভাষ্য, ছবিটির প্রতিটি চরিত্রই তাদের মনে দাগ কেটেছে, তবে বিশেষ ভাবে দর্শকের নজর কেটেছে তরুণ অভিনেতা হেদায়েত নান্নু। পর্দায় তার উপস্থিত ব্যাপক আনন্দ দিয়েছে দর্শকদের।

পূণ্য ফিল্মসের ব্যানারে নির্মিত ছবিটির নির্বাহী প্রযোজক গোলাম রাব্বানী। আর ‘পদ্মাপুরান’ সিনেমায় একটি থিম সং কম্পোজিশন করেছেন চিরকুট ব্যান্ডের সদস্য জাহিদ নিরব।




আপনার মূল্যবান মতামত দিন:


Top