হাবিপ্রবিতে বিদেশি শিক্ষার্থীদের ইদ আনন্দ

মশিউর রহমান, হাবিপ্রবি প্রতিনিধি : | ২৩ জুলাই ২০২১ ২০:৩৪ আপডেট: ২৩ জুলাই ২০২১ ২০:৩৭

ছবি : ইন্টারনেট

মুসলিম  উম্মাহর খুশির ইদ পালিত হয় বছরে দুইবার। এরই ধারাবাহিকতায় গত বুধবার বাংলাদেশে পালিত হলো ইদুল আযহা। এইদিনে পরিবারের সাথে সকলেই ইদ আনন্দে মেতে উঠে।কিন্তু করোনা মহামারির কারনে একটু ব্যতিক্রম ছিলো দিনাজপুরের হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (হাবিপ্রবি) বিদেশি শিক্ষার্থীদের ইদ আনন্দে।

করোনা মহামারির মধ্যে ঝুঁকি নিয়ে এসব শিক্ষার্থী নিজ দেশে যায় নি। যদিও পরিবার-পরিজন ছেড়ে ইদ পালন করার মধ্যে আক্ষেপ আছে, তবুও নিজ বিশ্ববিদ্যালয়ে সবার সাথে ইদ উদযাপন করতে পেরে উচ্ছ্বসিত এইসব বিদেশী শিক্ষার্থীরা ।

ইদ সম্পর্কে জানতে চাইলে নাইজেরিয়ার  আবু বকর সাইদু বলেন, ঈদুল আযহা মুসলিমদের জন্য একটি শিক্ষনীয় উৎসব। কুরবানি শব্দের অর্থ ত্যাগ এবং ত্যাগের মাধ্যমে আমরা অপরকে সাহায্য করার শিক্ষা পাই৷ এই ত্যাগের শিক্ষা হযরত ইব্রাহিম (আঃ) এর শিক্ষা যা মুসলিমরা পালন করে থাকি। উচ্চশিক্ষার জন্যই হাজার হাজার কিলোমিটার পাড়ি হয়ে হাবিপ্রবিতে এসেছি। পরিবারের বাইরেও আরেকটি পরিবার হয়ে উঠেছে যার নাম হাবিপ্রবি পরিবার। বাঙালিসহ সকল বিদেশি বন্ধুরা একসাথে ঘুরেছি, আনন্দ করেছি। আমার ডায়েরির অনেকগুলো পাতায় লিখে নিয়েছি এই ঈদ। এই ঈদ আর জীবনের স্মরণীয় ঘটনা হয়ে থাকবে।

ভারতের শিক্ষার্থী মোঃ শফিউল্লাহ (কৃষি-১৮) ইদ উদযাপন উপলক্ষে বলেন, ইদ মোবারক জানায় আমার বিশ্ববিদ্যালয় পরিবার এবং আমার পরিবারকে, আশা করি তারা সবাই ভালোভাবে ইদ করতে পারছে। ক্যাম্পাস বন্ধ থাকার ফলে আমরা অন্য এক ইদ পালন করছি। বন্ধুদের সাথে ইদ উদযাপন সত্যিই অনেক বেশি আনন্দের । আর কুরবানির আত্মত্যাগের মাধ্যমে এই আনন্দ আরো
জোরালো হয়েছে। সুস্থ হয়ে উঠুক পৃথিবী এই প্রত্যাশা।

উল্লেখ্য, বাংলাদেশের যেসব উচ্চশিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে সবচেয়ে বেশী বিদেশী শিক্ষার্থী পড়াশোনা করে তাদের মধ্যে হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়(হাবিপ্রবি) শীর্ষস্থানীয়। এই সব বিদেশি শিক্ষার্থীরা উচ্চশিক্ষা অর্জনের জন্য ভারত, সোমালিয়া,নাইজেরিয়া, নেপাল,ভুটান ইত্যাদি দেশ থেকে বাংলাদেশে আসে।




আপনার মূল্যবান মতামত দিন:


Top