সহপাঠী লেবুর পরিবারের পাশে আমরা

সময় ট্রিবিউন | ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২১ ১২:০৩ আপডেট: ২৬ অক্টোবর ২০২১ ০৯:১১

ছবি : সংগৃহীত

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (জবি) শিক্ষার্থী আল-আমিন লেবু ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয়ে গত বৃহস্পতিবার (৯ সেপ্টেম্বর) মারা যায়। তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০১৬-১৭ শিক্ষাবর্ষের বাংলা বিভাগের অর্নাস চতুর্থ বর্ষের শিক্ষার্থী ছিলেন।

পারিবারিকভাবে আর্থিক স্বচ্ছলতার অভাবে সঠিক সময়ে চিকিৎসা গ্রহণ করতে পারেনি। পরিবারের মেজ সন্তান ছিলেন আল-আমিন লেবু। অভাবে সংসারে বৃদ্ধ মা-বাবার একমাত্র আশা ভরসা ছিলেন ভার্সিটি পড়ুয়া সন্তান লেবু। কিন্তু অসময়ে অকালে চলে গেলো সন্তান। বাবার বয়স প্রায় ৬৫, লিকলিকে গড়নের, চুল ও লোমকুপে পাঁক ধরেছে বেশ কয়েক বছর আগেই। এ বয়সেও প্রচন্ড রোদ বৃষ্টি উপেক্ষা করে মানুষের জমিতে মজুর খাটেন! বৃদ্ধা মা অসুস্থ। বড় ও ছোট ভাই পেশায় ভ্যান চালক।

বৃদ্ধ বাবা-মা আল আমিন লেবুকে নিয়ে অনেক স্বপ্ন দেখতেন তাদের ছেলে বাংলাদেশের সেরা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র। লেখাপড়া শেষ করে সে চাকরি করবে তাদের জং ধরা ফুঁটো টিনের চালা দিয়ে আর পানি পড়বে না, অবস্থার পরিবর্তন হবে। সে তার পরিবারের অবস্থার পরিবর্তন করার সময় পেলেন না।

কিন্তু লেবুর ইচ্ছা পূরণে ও বৃদ্ধ মা-বাবাকে শেষ জীবনে একটু ভালোভাবে কাটাতে পারে তার সহপাঠী সহ বাংলা বিভাগের উদ্যোগে "সহপাঠী লেবুর পরিবারের পাশে আমরা " ব্যানারে অর্থ সংগ্রহ করা হচ্ছে।

এবিষয়ে বাংলা বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক পারভীন আক্তার জেমি বলেন, শিক্ষার্থীরা আমার মাধ্যমে একটা দরখাস্ত উপাচার্য বরাবর দিয়েছে। তারপরে দেখা যাক পরবর্তী কী নির্দেশনা আসে। এরআগে আল-আমিনের বাড়িতে আসা যাওয়া করেছে, সেই খরচটাও তো আমরা দিয়েছি। আর এখন সবাই ব্যক্তিগতভাবে তাকে সাহায্য করতেছে৷

প্রত্যেকেই অংশগ্রহণের মাধ্যমে আমরা কিছুটা হলে লেবুর বয়স্ক মা-বাবাকে শেষ বয়েছে শান্তিতে জীবন কাটানোর ব্যবস্থা করতে পারি। সকলের মানবিক সহযোগিতা কামনা করছেন সংশ্লিষ্টরা।
সাহায্যে পাঠাতে :
বিকাশ:01990220057
বিকাশ:01890927325
নগদ:01890927325
রকেট:018909273258




আপনার মূল্যবান মতামত দিন:


Top