বৃহস্পতিবার, ১৩ ডিসেম্বর ২০১৮, ০১:৪৫ পূর্বাহ্ন

বঙ্গবন্ধুর পাগল মজনু মোল্লার পাশে মানবতার ফেরিওয়ালা গোলাম রাব্বানী

বঙ্গবন্ধুর পাগল মজনু মোল্লার পাশে মানবতার ফেরিওয়ালা গোলাম রাব্বানী

শাহ আল বেপারী

প্রবীণ অাওয়ামী লীগ নেতা মজনু মোল্লা পাশে দাড়ালেন মানবতার ফেরিওয়ালা খ্যাত ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক  গোলাম রাব্বানী।

জানা যায়, মজনু মোল্লা ফরিদপুরের প্রত্যন্ত অঞ্চলের একজন বঙ্গবন্ধুর পাগল যিনি সরাসরি জাতির জনকের সান্নিধ্যও লাভ করেছেন।

অারো জানা যায়, এছাড়াও ছিলেন ৭ মার্চ সোহরাওয়ার্দির ঐতিহাসিক ময়দানেও।সত্তরের দশকে যখন  দশগ্রামে খুজেও একজন পঞ্চমশ্রেনী পাশ খুজে পাওয়া যেতনা,তখন তিনি ম্যাট্রিক পাশ করেছিলেন, বাবা ছিলেন কেরানী। এলাকায় রয়েছে স্বনামও,সকাল থেকে রাত অবধি বাড়িতে থাকতো বিশিষ্ট জনের আনাগোনা।

ভাগ্যের কি নির্মম পরিহাস,আজ তাকেই অন্যের বাড়ি থাকতে হয়।নেই কোন বেচে থাকার সম্বল।অবলম্বন বলতে কেবল দুই ছেলে।তারাও তাদের মাকে হারিয়েছে কয়েকবছর হল।

অারো জানা যায়, ভাগ্য পরিবর্তনের জন্য আশির দশকে বাড়ি ছাড়েন মজনু মোল্লা। কিন্তু ভাগ্যের পরিবর্তন হয়নি। উল্টা কয়েক  বছর পর গ্রামের বাড়ি গিয়ে দেখেন, তার বলতে আর কিছুই নেই।সবই বেদখল করেছে তার পরিজনরা।এমনকি বাপের ভিটেমাটিতেও তার কোন অধিকার নেই।

বাড়ি ছাড়তে হয় তাকে,গত দুমাস ধরে এখানে ওখানে, কখনো মসজিদে,কখনো খোলা আকাশের নিচে জীবনযাপন করেন। কেউ এগিয়ে আসেনি।

অবশেষে গত ২৬ সেপ্টেম্বর তাকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে একটি পোস্ট করেন ফরিদপুরের উচ্চমাধ্যমিক পড়া একজন শিক্ষার্থী। বিষয়টি নজড়ে পড়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সদ্য সাবেক সহসভাপতি শেখ স্বাধীন মোঃ শাহেদের।

তিনি তাৎক্ষনিকভাবে পোস্ট দাতার সাথে যোগাযোগ করেন।পোস্ট দাতাকে বলেন তার নিজের বাড়িতে মজনু মোল্লাকে নিয়ে আসতে। সেদিন রাত তার বাড়িতেই ঘুমান মজনু।অতঃপর আজ থেকে মজনু মোল্লার স্থান হয়েছে শেখ স্বাধীন মোঃ শাহেদ কর্তৃক ২০১৫ সালে প্রতিষ্ঠিত মাচ্চর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ (প্রস্তাবিত) কার্যালয়।

যতদিন পর্যন্ত মজনুর স্থায়ী আবাসন না করে দিতে পারেন, ততদিন পর্যন্ত তিনি কার্যালয়েই থাকবেন বলে  সময় ট্রিবিউনকে  নিশ্চিত করেন  শাহেদ।

আজ মজনু মোল্লার বিষয়টি বাংলাদেশ ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সাধারন সম্পাদক, মানবতার ফেরিওয়ালা খ্যাত জনাব গোলাম রাব্বানীকে অবগত করান শেখ শাহেদ।

তিনি মজনু মোল্লাকে একটি বাড়ি করে দেয়ার প্রতিশ্রুতি দেন।

গোলাম রাব্বানী বলেন,বর্তমান ছাত্রলীগ পজিটিভ কাজের ব্র‍্যান্ড এম্বাসেডর। আমি প্রবীন আওয়ামী কর্মী মজনু মোল্লার বিষয়টি জেনেছি।

আমরা খুব শীঘ্রই উনাকে একটা বাড়ি করে দিয়ে উনার আবাসন সংকট মেটাব ইনশাআল্লাহ্‌। সকল ভাল কাজের সাথে থাকবে ছাত্রলীগ।

এ সম্পর্কে মজনু মোল্লা জানতে চাইলে তিনি মোবাইলে অাবেগতাড়িত কন্ঠ বলেন,

“সারাজীবন আওয়ামীলীগ করেছি।

আজ জীবন শেষে জায়গা হয়েছে এই আওয়ামীলীগের ই ঘরে। আমি হাজার কষ্টেও তাই হাসছি।তবে আমি এভাবে থাকতে চাইনা। শেখের বেটি সবাইকে দেখে। আমাকে যেন দেখেন।আমার তো আর সে ছাড়া যাওয়ার জায়গা নাই!



Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

China Scholarship bd

Somoy-Tribune is one of the most revered online newspapers in Bangladesh, due to its reputation of neutral coverage and incisive analysis. © All rights reserved  2018 somoytribune.com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com