মঙ্গলবার, ২১ অগাস্ট ২০১৮, ০৬:১৪ পূর্বাহ্ন

আইআইইউসিতে রাব্বানীর নেতৃত্বে শহীদ মিনারে ফুল দিল ছাত্রলীগ

আইআইইউসিতে রাব্বানীর নেতৃত্বে শহীদ মিনারে ফুল দিল ছাত্রলীগ

আন্তর্জাজিত ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় চট্টগ্রামের (আইআইইউসি) কুমিরা স্থায়ী ক্যাম্পাসের শহীদ মিনারে মহান আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসে ফুলেল শ্রদ্ধা জানাতে পারেনি বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগ। আর এই খবর যখন বিভিন্ন পত্রিকায় প্রচার হয়, ছাত্রলীগের সাথে অবিচার করা হয়েছে বলে মনে করেণ মানবতার ফেরিওয়ালা খ্যাত ছাত্রলীগের শিক্ষা ও পাঠচক্র বিষয়ক সম্পাদক গোলাম রাব্বানী। ছুটে যান গোলাম রাব্বানী আন্তর্জাজিত ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় চট্টগ্রামের (আইআইইউসি)তে এবং সেখানে গোলাম রাব্বানী নেতৃত্ব দিয়ে শহীদ মিনার ফুল দেন ছাত্রলীগ। এ সম্পর্কে গোলাম রাব্বানী বলেন, আইআইইউসি, জামাত অধ্যুষিত সীতাকুন্ডের বড় কুমিরাতে নিজস্ব ক্যাম্পাস। গভর্নিং বোর্ড ও বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন স্বভাবতই জামাত-শিবির নিয়ন্ত্রিত। তাদের প্রছন্ন সহায়তায় নামে-বেনামে শিবির সকল কার্যক্রম পরিচালনা করার অনুমিত পেলেও রাজনীতি মুক্ত ক্যাম্পাসের দোহাই দিয়ে ছাত্রলীগকে সম্পূর্ণ নিষ্ক্রিয় রাখা হয়েছে। তিনটি আবাসিক হল, সবগুলোই শিবির নিয়ন্ত্রিত। এমতাবস্থায় ছাত্রলীগ যেন কোনভাবেই মাথাচাড়া দিতে না পারে, সেজন্য চেষ্টার কোন ত্রুটিই করে নাই ভিসি-প্রক্টর সহ পুরো প্রশাসন। গতবছর ছাত্রলীগ করার অপরাধে ৪৭ জনকে বহিষ্কার করেছিলো ভিসি, আর এবার ব্যানারে ছাত্রলীগের নাম থাকায় ২১ শে ফেব্রুয়ারি ক্যাম্পাস শহীদ মিনারে ফুল দেয়ার অনুমিত মেলেনি বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের! আইনের ছাত্র হিসেবে আমি সরল ভাষায় বুঝি, “Injustice anywhere is a serious threat to justice everywhere” এখানে ছাত্রলীগের সাথে এমন বিমাতৃসুলভ আচরণ মানে তা পুরো বাংলাদেশ ছাত্রলীগের জন্য মানহানিকর। যে দেশে স্বয়ং প্রধানমন্ত্রী ও মহামান্য রাষ্ট্রপতি ছাত্রলীগের গর্বিত কর্মী… সেদেশে ছাত্রলীগকে ভাষা শহীদদের শ্রদ্ধার্ঘ দিতে বাঁধা দেয়, এত বড় স্পর্ধা কার! তাই আমি ছাত্রলীগের একজন কর্মী হিসেবে আইআইইউসিতে ক্যাম্পাসের শহীদ মিনারে ছাত্রলীগের ব্যানারেই ফুল দিই। উল্লেখ্য,শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে মহান একুশে ফেব্রুয়ারি সকাল ১১টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ মিনারে ছাত্রলীগের কয়েকজন নেতাকর্মী শ্রদ্ধা নিবেদন করতে আসেন। শ্রদ্ধা নিবেদনের ফুলের তোড়ায় ছাত্রলীগ লেখা থাকায় বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ তাদের ফুল দিতে বাধা দেয়। এর প্রতিবাদে ছাত্রলীগ বিক্ষোভ করে বিশ্ববিদ্যালয় গেটের সামনে ঢাকা–চট্টগ্রাম মহাসড়কে ব্যারিকেড দেয়। পুলিশের হস্তক্ষেপে আধঘন্টা পর ছাত্রলীগ ব্যারিকেড তুলে নিলে মহাসড়কে যান চলাচল আবার শুরু হয়। ঘটনার পর বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রো–ভিসির কার্যালয়ে ত্রিপক্ষীয় একটি বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। এতে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আবদুল্লাহ আল বাকের ভূঁইয়া, সীতাকুণ্ড সার্কেলের এএসপি শস্পা রাণী সাহা, থানার ওসি ইফতেখার হাসান ও সোনাইছড়ির চেয়ারম্যান মনির আহমদ। এ পূর্বে বিভিন্ন নির্যাতিত ছাত্রলীগ ও সাধারণ মানুষের পাশে দাড়িয়ে সাধারণ কর্মীদের মাঝে স্থান দখল করে নেন গোলাম রাব্বানী।



Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

China Scholarship bd

Somoy-Tribune is one of the most revered online newspapers in Bangladesh, due to its reputation of neutral coverage and incisive analysis. © All rights reserved  2018 somoytribune.com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com